মেয়েদের কি বীর্য বের হয়?

 ★★→মেয়েদের বীর্য বলে কিছু নেই। এক প্রকার তরল নির্গত হয় (ছেলেদেরও হয়)। মেয়েদের বেলায় একে ভেজিনাল ফ্লুইড বলে।



 এটা নিঃসরণ বন্ধ হলেই বুঝবেন আপনার স্ত্রীর অর্গাজম হয়ে গেছে।এখন কীভাবে বুঝবেন যে ফ্লুইড নির্গমন বন্ধ হয়েছে তার কোনো নিয়ম নেই, 


 আন্দাজ করে নিবেন বা তাকে জিজ্ঞেস করবেন তার প্রবলেম হচ্ছে কিনা। সম্পুর্ণ আপনাদের ব্যক্তিগত বোঝাপড়া, ওপেনে বলার কিছু নেই।


 মেয়েদের বীর্যপাত হয় না। যদি মেয়ে ও ছেলেদের জননাঙ্গ সম্পর্কিত পোস্টগুলি তুমি পড়ে থাক তবে বুঝতে পারবে যে মেয়েদের শরীরে বীর্য (semen) তৈরি হওয়ার কোন উপায়ই নেই।


 এমনিতে যৌন উত্তেজনার সময় যোনি থেকে এক ধরনের পিচ্ছিল রস নির্গত হয়। এছাড়া অর্গাজম হলে মেয়েদের যোনি হতে আলাদা করে আর কিছুই বের হয় না। কিছু কিছু প্রাপ্তবয়ষ্কদের জন্য তৈরি মুভিতে দেখানো হয় যে অর্গাজমের সময় মেয়েদের যৌনাঙ্গ থেকে প্রচুর পরিমাণে তরল ফিনকি দিয়ে বের হয়।


 ওটা আসলে মূত্রত্যাগ, যা মূত্রছিদ্র দিয়ে বের হয়। অর্গাজমের সময় এই ধরনের মূত্রত্যাগকে বলা হয় squirting।


 তবে এই সময় মূত্রের সাথে কিছু বিশেষ গ্রন্থি হতে নিসৃত তরলও মিশে থাকতে পারে, যা সাধারণত মূত্রে থাকেনা। এই বিশেষ তরলগুলিকে মেয়েদের প্রকৃত ejaculate হিসেবে ধরা হয়। কিন্তু এই তরলে কোন শুক্রাণু থাকেনা।


 যৌন উত্তেজনার সময় পুরুষের লিঙ্গ হতে স্বচ্ছ ও পিচ্ছিল তরল বের হওয়া একটি স্বাভাবিক ঘটনা। ওই তরল কূপার্সের গ্রন্থি থেকে ক্ষরিত হয় এবং মূত্র-জনন নালীকে বীর্য নির্গমনের জন্য প্রস্তুত করে।


 এছাড়াও হস্তমৈথুন এবং যৌনসঙ্গমের সময় ওই পিচ্ছিল তরল লুব্রিকেশনের কাজও করে থাকে। ওই তরলের ইংরেজি নাম হল pre-ejaculate (প্রী-ইজাকুলেট)।


 প্রী-ইজাকুলেট বের হলে শরীরের কোন ক্ষতি হয় না। ওর থেকে বরং এটা প্রমাণিত হয় যে তোমার যৌনাঙ্গ সুস্থ ও স্বাভাবিক রয়েছে। যদি ওই তরল না বের হত তবে সেটাই চিন্তার বিষয় হত। 

Comments

Popular posts from this blog

জ্বীন জাতির বিস্ময়কর ইতিহাস (সংক্ষেপিত)

বাংলা-ব্লগ.কমে লেখুন।

Bangla Koster Sms | কষ্টের এসএমএস | Bangla Sad Sms